বায়রায় চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ, বাদ অনেক প্রভাবশালী

0
205

আসন্ন বায়রা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আবারও সরব হয়ে উঠেছে জনশক্তি রপ্তানিকারকদের শীর্ষ সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্টারন্যাশনাল রিক্রুটিং এজেন্সি (বায়রা)। আগামী ২২ মে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনকে স্বচ্ছ ও বিতর্কহীন করতে বেশ কঠোর অবস্থানে রয়েছেন নির্বাচন বোর্ড ও আপিল বোর্ড। বায়রা সংঘস্মারক, সংঘবিধি ও বিভিন্ন সময়ে অনুষ্ঠিত বার্ষিক সাধারণ সভায় পাশকৃত প্রস্তাবগুলোর চুলচেরা বিশ্লেষণ করে চূড়ান্ত করা হয়েছে ভোটার তালিকা, যেখানে বাদ পড়েছেন সংগঠনের অনেক প্রভাবশালী ব্যক্তি।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বায়রার গত কার্যনির্বাহী কমিটির (২০১৮-২০২০) মেয়াদ ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর মাসেই শেষ হয়। কিন্তু বৈশ্বিক মহামারি করোনার কারণে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ৩০ এপ্রিল ২০২১ পর্যন্ত কমিটির মেয়াদ বৃদ্ধি করে। পরবর্তীতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় গত ২৭ ডিসেম্বর মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব নূর মো. মাহবুবুল হককে বায়রায় প্রশাসক নিয়োগ করে প্রজ্ঞাপন জারি করে দায়িত্ব হস্তান্তর করে। গত ৩১ জানুয়ারি বায়রার প্রশাসক নূর মো. মাহবুবুল হক স্বচ্ছ ও সুষ্ঠু নির্বাচন পরিচালনার জন্য তিন সদস্য বিশিষ্ট বায়রা নির্বাচন বোর্ড এবং তিন সদস্য বিশিষ্ট নির্বাচন আপিল বোর্ড গঠন করেন।

যার সকল সদস্যই বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা। নির্বাচন বোর্ডের সদস্যরা হচ্ছেন- চেয়ারম্যান বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মিরাজুল ইসলাম উকিল, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব সুবর্ণা সরকার, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিবের একান্ত সচিব প্রণব কুমার ঘোষ। আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান হচ্ছেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো. আবদুস সামাদ আল আজাদ, সদস্য বাণিজ্য মন্ত্রীর একান্ত সচিব মোহাম্মদ মাসুকুর রহমান সিকদার ও সদস্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো. সেলিম হোসেন।

বায়রার সাধারণ সদস্যরা বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানান এবং সকলেই বায়রার নবনিযুক্ত প্রশাসক নূর মো. মাহবুবুল হকের পেশাদারিত্ব ও আন্তরিকতার প্রতি সাধুবাদ ও পূর্ণ আস্থা জ্ঞাপন করেন। এরই ধারাবাহিকতায় ১০ ফেব্রুয়ারি বায়রা নির্বাচন বোর্ড চেয়ারম্যান বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মিরাজুল ইসলাম উকিল বাণিজ্য সংগঠন বিধিমালা ১৯৯৪ এবং বায়রার সংঘবিধি অনুযায়ী গোপন ব্যালটের মাধ্যমে বায়রার ২৭ সদস্য বিশিষ্ট কার্যনির্বাহী কমিটির ২০২১-২০২৩ (২৪ মাস) মেয়াদী নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন।

একটি স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন উপহার দিতে নির্বাচন বোর্ড শুরুতেই অত্যন্ত স্বচ্ছতা ও দক্ষতার সাথে বায়রার সংঘস্মারক ও সংঘবিধি আমলে নিয়ে ভোটার তালিকা হালনাগাদ করার প্রক্রিয়া শুরু করে। যা বিভিন্ন মহলে আলোচিত ও প্রসংশিত হয় এবং সংগঠনের নেতারা প্রশাসকের প্রতি তাদের সমর্থন ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। প্রাথমিকভাবে খসড়া ভোটার তালিকা ও পরবর্তীতে আপিল বোর্ডের শুনানি সাপেক্ষে গত ৬ এপ্রিল বায়রা নির্বাচন বোর্ড চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করে।

পর্যালোচনা করে দেখা যায়, নারী কর্মী রপ্তানিকারকদের সংগঠন ফিমেল ওয়ার্কার রিক্রুটিং এজেন্সিজ অব বাংলাদেশ (ফোরাব) এর সদস্যদেরকে চূড়ান্ত ভোটার তালিকা থেকে বাদ দেয়া হয়েছে, যা বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক ২০১৯ সালের ১৯ ডিসেম্বর ইস্যুকৃত পত্রের (স্মারকের সূত্র নং ২৬.০০.০০০০.১৫৭.৩৩.০৪৩.১৮.৪০২) সিদ্ধান্তের প্রতিফলন। পাশাপাশি বিগত ২০১৭ সালের ২৮ অক্টোবর অনুষ্ঠিত বায়রার ৩০তম বার্ষিক সাধারণ সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জিটুজি প্লাস পদ্ধতিতে মালয়েশিয়ায় কর্মী প্রেরণকারী ১০ এজেন্সী কর্মী প্রতি ১০০০ (এক হাজার) টাকা কল্যাণ তহবিলে প্রদান করবে বলে যে সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়, যা ২০০৭-২০০৯ পর্যন্ত মালয়েশিয়ায় কর্মী প্রেরণেও প্রযোজ্য ছিল; সেই সিদ্ধান্তের বাস্তবায়ন প্রতিফলিত হয় নাই এবং এই খাতে ৬ কোটি টাকারও বেশি এখনো বকেয়া আছে বিধায় নিয়ম অনুযায়ী তাদেরকেও চূড়ান্ত ভোটার তালিকা থেকে বাদ দেয়া হয়েছে।

বায়রার সদ্য সাবেক মহাসচিব জনাব শামীম আহমেদ চৌধুরী নোমান বলেন, বায়রার কল্যাণ তহবিল গঠন করা হয়েছে বায়রার সদস্যদের উন্নয়ন ও কল্যাণার্থে। এক্ষেত্রে এজিএম ও ইসি কমিটির গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কল্যাণ তহবিলের টাকা বকেয়া রেখে যারা নির্বাচন করতে চায় তাদের নৈতিকভাবেই বয়কট করা উচিত।

বায়রার একাধিক বর্তমান ও সাবেক নেতারা মনে করেন, যারা আগামীতে বায়রার নেতৃত্বে আসতে চান তাদের নিজেদের এ ধরনের সকল বিতর্কের ঊর্ধ্বে রাখা উচিত। বায়রা আমাদের প্রাণের সংগঠন। নতুন প্রজন্মের জন্য সম্মিলিতভাবে একটি শক্তিশালী, কার্যকরী ও সিন্ডিকেট মুক্ত বায়রা নেতৃত্ব গঠন করা আমাদের সবার দায়িত্ব।

নারী কর্মী রপ্তানিকারকদের সংগঠন ফোরাবের সভাপতি আব্দুল আলীম বলেন, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় থেকে বলা আছে, সকল রিক্রুটিং এজেন্সি বায়রার সদস্য ও ভোটার হতে পারবে। কিন্তু বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের এক চিঠির ভিত্তিতে চূড়ান্ত ভোটার তালিকা থেকে আমাদের সংগঠনের সদস্যদের নাম বাদ দেয়া হয়েছে। ভোটার হতে আমরা আইনিভাবে মোকাবেলা করব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here